খালেদার চিকিৎসার বিষয়ে সরকার ইতিবাচক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খালেদার চিকিৎসার বিষয়ে সরকার ইতিবাচক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়টি সরকার ইতিবাচক দৃষ্টিতে বিবেচনা করবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বুধবার (৫ মে) রাতে খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা করানোর বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করে লিখিত আবেদন করেন তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার। সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এর আগে রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসায় যান শামীম ইস্কান্দার। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য সর্বোচ্চ সুযোগ করে দিয়েছেন। খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার এসেছিলেন। তিনি জানিয়েছেন, খালেদা জিয়া হাসপাতালে ভর্তি আছেন। ডাক্তাররা অভিমত দিয়েছেন তাকে বিদেশে নেওয়া প্রয়োজন। আমরা যদিও ডাক্তারদের কাছে শুনি নাই। প্রধানমন্ত্রী এসব ব্যাপারে অত্যন্ত উদার। তিনি বলেন, আমরা পজিটিভলি এই ব্যাপার দেখব। কালকের মধ্যে আইন মন্ত্রণালয়ে এটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, তাকে বিদেশে পাঠানোর ব্যাপারে অনেকগুলো আইনি বিষয় জড়িত। কোর্টের কোনো নির্দেশ লাগবে কি না? সেটাও দেখতে হবে। সে জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে আবেদন পাঠানো হয়েছে। তাদের মতামত আসলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা অবশ্যই পজিটিভলি দেখছি। পজিটিভলি দেখছি বলেই তার দণ্ড স্থগিত করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। খালেদা জিয়া গত ২৭ এপ্রিল হাসপাতালে ভর্তি হন। এর আগে গত ১১ এপ্রিল তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। আক্রান্তের ১৪ দিন পর গত শনিবার (১ মে) দুপুরে ফের খালেদা জিয়ার নমুনা নেওয়া হয়। দ্বিতীয়বার পরীক্ষাতেও তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরই মধ্যে গত সোমবার (৩ মে) থেকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) চিকিৎসাধীন। পরে শ্বাসকষ্ট হওয়ায় কেবিন থেকে সিসিইউতে নেওয়া হয় তাকে। তবে সিসিইউতে তার শারীরিক অবস্থার তেমন কোনো পরিবর্তন হয়নি। শ্বাসকষ্টের যে সমস্যা, তা-ও পুরোপুরি সারেনি বলে জানা গেছে।