রমজানে যে ছোট্ট আমলে মাফ হবে অতীতের সব ছোট গোনাহ

রমজানে যে ছোট্ট আমলে মাফ হবে অতীতের সব ছোট গোনাহ

রমজান মাস সকল মাসের চেয়ে সেরা। এই পবিত্র মাস আল্লাহর নৈকট্য লাভের সুবর্ণ সুযোগ মুমিন্দের জন্য। পবিত্র রমজান মুমিনের মুক্তির মাস।এই মাসে মহান আল্লাহ তার বান্দাদের পাপমুক্ত করেন। তাদের প্রতিটি আমলের সওয়াব বহুগুণে বাড়িয়ে দেন। রাসূলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘যে ব্যক্তি এই মাসে একটি নফল কাজ করবে, সে যেন অন্য মাসের একটি ফরজ আদায় করল। আর যে ব্যক্তি এ মাসে একটি ফরজ আদায় করবে, সে যেন অন্য মাসের ৭০টি ফরজ সম্পাদন করল।’ (মিশকাতুল মাসাবিহ, হাদিস : ১৯৬৫) পবিত্র রমজান মাসের রাতে এশার ফরজ ও সুন্নত নামাজের পর বিতরের আগে ২০ রাকাত নামাজ পড়া সুন্নতে মুআক্কাদাহ। পুরো রমজান মাসে তারাবির নামাজ জামাতে পড়া ও সম্পূর্ণ কোরআন একবার খতম করাও সুন্নতে মুআক্কাদাহ। খতমে তারাবিতে হাফেজ সাহেবের জন্য কোনো প্রকার টাকা-পয়সার শর্তারোপ করা জায়েজ নেই। হুজুর (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘যে ব্যক্তি রমজান মাসে ঈমানসহকারে শুধু সওয়াবের আশায় তারাবি পড়েন, তার অতীতের সব (সগিরা) গোনাহ মাফ করে দেয়া হয়’। (বুখারি ও মুসলিম শরিফ)