সি-ফুড অ্যালার্জিকে বিদায় জানান এই উপায়ে

সি-ফুড অ্যালার্জিকে বিদায় জানান এই উপায়ে

অ্যালার্জির অনেক ধরনের হয়ে থাকে। খাবারজনিত কারণেও অ্যালার্জি হয়ে থাকে। বিশেষ করে সি-ফুড অ্যালার্জি রয়েছে অনেকেরই। এ কারণে অনেকেই ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও সামুদ্রিক মাছ কিংবা এ ধরনের খাবার খেতে পারেন না। কিন্তু এর রয়েছে সহজ সমাধান। এর জন্য সি-ফুড কেনার সময় কিংবা রান্নার আগে কয়েকটি পদ্ধতি মেনে চলতে হবে। তবেই এই অ্যালার্জিজনিত সমস্যা অনেকটাই এড়িয়ে চলা যাবে। চলুন জেনে নেয়া যাক উপায়টি- > সামুদ্রিক মাছ বাজার থেকে বাসায় আনার পর দ্রুত রেফ্রিজারেটরে রাখুন। এটি বেশিক্ষণ বাইরে ফেলে রাখা উচিত নয়। > হিমায়িত বা ফ্রোজেন সি-ফুডের বেলায়ও একই কথা প্রযোজ্য। দ্রুত রেফ্রিজারেটরে রাখতে হবে। > হিমায়িত সি-ফুড নামকরা প্রতিষ্ঠান থেকে কেনা উচিত। ব্র্যান্ডটিও যেন সুপরিচিত হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। > কাঁচা সামুদ্রিক মাছ ভালো রাখার জন্য সেলোফোন পেপারে র‌্যাপিং করে কিংবা মুড়িয়ে কন্টেইনারে ভরে ফ্রিজিং করুন। > রান্না করা খাবারদাবারের পাশাপাশি সমুদ্রের মাছ খোলা অবস্থায় রাখা যাবে না। কেননা এতে সংক্রমণ ছড়াতে পারে। > ফ্রোজেন সি-ফুড রান্নার আগে উষ্ণ পানিতে ধুয়ে নিতে হবে। এই উপায়গুলো মেনে চললে সি-ফুড খেলে আর অ্যালার্জি হবে না। ফলে ইচ্ছা হলেই পছন্দ মতো সি-ফুড খেতে পারবেন অনায়াসেই।